ইউনিয়নসমূহের নামকরণ

এক নজরে চরম্বা ইউনিয়ন

চরম্বা ইউনিয়ন পরিষদঃ


এই এলাকায় চড়ই ও আম্বা নামে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী দুই ভাই-বোন মোঘল শাসকের প্রতিনিধি ছিলেন। তাঁদের নামানুসারে এ এলাকার নমকরন চরম্বা হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। অন্য এক জনশ্রুতি মতে, এক বৃদ্ধ মহিলা সন্ধায় তার বাছুরের সন্ধানে হাতে আগুনের মশাল নিয়ে খালের চরে যায়। ঐ সময়ে বৃদ্ধ মহিলা হাম্বা-হাম্বা করে বাছুর খোজে। তখন এক লোক মহিলাকে বলেন হাম্বা চরে আছে। চরে হাম্বা রয়েছে বলে এই এলাকার নামকরণ চরম্বা হয় বলে জানা যায়।

১৯৬৪ সালে সম্ভবত এ ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠিত হয়। আয়তনঃ ১০০২৯ একর। জনসংখ্যাঃ প্রায় ৪০ হাজার। হাঙ্গর, জাংছড়ি, টংকাবতী, কেরাতর ছড়া ও নারিয়ার ছড়া নামে উল্লেখযোগ্য খাল-ছড়া এ ইউনিয়নের বুকে বয়ে চলেছে। দানুমিয়া মাষ্টার, সোলতান আহমদ, রফিক আহমদ সিকদার, সোলতান আহমদ, বদিউল আলম, আহমদ মিয়া মেম্বার (ভারপ্রাপ্ত) ও অধ্যাপক সাদাত উল্লাহ ব্যক্তিত্ব বিভিন্নসময় এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানের দায়িত্বপালন করেন।


চরম্বা ইউনিয়নে ৬টি মৌজার নাম ও আয়তন:

তেলিবিলা(১০৭ হেক্টর),

চরম্বা(১৪১২ হেক্টর),

বিবিবিলা(২৫৬ হেক্টর),

মাইজবিলা(১০৩৯ হেক্টর),

নোয়ারবিল(১৩০ হেক্টর),

রাজঘাটা(৩০১ হেক্টর)।


চরম্বা ইউনিয়নের:

মোট জনসংখ্যা ও ভোটার-২৫,৪৭০ জন ও ১৫,৮২৪ জন।

পুরুষ জনসংখ্যা ও ভোটার-১২,৪৯৬ জন ও ৮০৪১ জন।

মহিলা জনসংখ্যা ও ভোটার-১২,৯৭৪ জন ও ৭,৭৮৩ জন।

তথ্যসূত্রঃ ১। লোহাগাড়া ইতিহাস ও ঐতিহ্য বই, লেখকঃ মোহাম্মদ ইলিয়াছ;
২। ইন্টারনেট।

About the author

lohagarabd

2 Comments

Leave a Comment