মূলপাতা

লোহাগাড়ার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “মিহির” ও লোহাগাড়াবিডি.কম চতুর্থ বছরে পদার্পন

Written by lohagarabd

দেখতে দেখতে তিনটি বছর চলে গেলো। ২০১৬ সালের আগস্ট মাস। প্রিয় লোহাগাড়ায় সমাজসেবামূলক কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে কিছু তরুণরা মিলে প্রতিষ্ঠা করেছিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “মিহির”। “মিহির” সংগঠনের কাজ সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে কাজ করা, অবহেলিত মানুষদের কষ্টের ভাগিদার হওয়া। এরই ধারাবাহিকতায় “মিহির” গত তিন বছরে লোহাগাড়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে, সুবিধাবঞ্চিত স্কুলে পড়ুয়া শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেছে, শিশুদের শিক্ষার প্রতি মনযোগী করতে আয়োজন করেছে মহান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতার। সবচেয়ে যেটি আশ্চর্যজনক ব্যাপার সেটি হচ্ছে বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে যেকোনো বাঙালী লোহাগাড়া সম্পর্কে জানতে পারার প্লাটফর্মটি www.lohagarabd.com তৈরি করেছে “মিহির” সংগঠন। আমরা সবসময় চেয়েছি লোহাগাড়াকে একটি ছকে নিয়ে আসতে। এরই ধারবাহিকতায় প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে www.lohagarabd.com লোহাগাড়ার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, লোহাগাড়ার কৃতি সন্তানদের সম্পর্কে লিখেছে। বাংলাদেশের খুব কম উপজেলায় এরকম ওয়েবসাইট রয়েছে। যেখানে এলাকার লেখক, কবি, সাহিত্যপ্রেমী শিক্ষার্থীদের লেখা কবিতা, গল্প, ভ্রমণকাহিনী ইত্যাদি প্রকাশ করা হয়। এই মহান কাজটি করার পেছনে রয়েছে কিছু নিঃস্বার্থ মানুষের একাগ্রতা ও অনুপ্রেরণা। শুরুর দিকে মানুষের সাড়া তো দূরের কথা, কেউ আমাদেরকে গ্রহণও করেনি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে যুক্ত থাকা লোহাগাড়ার মানুষদের কাছে সহযোগিতা চেয়েছি। অনেকেই এগিয়ে এসেছে। অনেকেই আবার জবাবও দেয়নি। তারপরও পথ চলেছি। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটা কথায় মনে পড়েছিল বারবার সেটি হচ্ছে- যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চল রে।

একলা চলতে চলতে আমরা পেয়েছি অনেক উপদেষ্টা, শুভাকাঙ্ক্ষী। যাঁদের সহযোগিতায় আমাদের সামনের পথচলা আরো সুগম হবে বলে আশা করি। আজকের এই দিনে আমি “মিহির” পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। এছাড়া যাঁরা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাব “মিহির” এবং লোহাগাড়াবিডি.কম এর সাথে যুক্ত আছেন তাঁদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

About the author

lohagarabd

Leave a Comment